মীর্জাগঞ্জে ব্রিজের অবস্থা বেহাল, দুর্ভোগ চরমে

দীর্ঘদিন যাবত্ সংস্কারের অভাবে মীর্জাগঞ্জ উপজেলার মাধবখালী ইউনিয়নের শিশুর হাট-বাজার সংলগ্ন চাকর খালের উপর আয়রন ব্রিজের অবস্থা বেহাল হয়ে পড়েছে। এতে দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।

ব্রিজের মাঝখানে এবং পূর্বাংশের দুটি জায়গায় সিমেন্টের ঢালাই ভেঙে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ব্রিজের উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। পথচারীরা পায়ে হেঁটে কোনো রকম ব্রিজটির উপর দিয়ে চলাচল করতে পারলেও বড় ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে এলাকাবাসী সম্প্রতি ব্রিজটির দুই পাশে বাঁশ বেঁধে লোকজনদের চলাচলও সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিয়েছে। এতে সর্বস্তরের লোকজনের বিকল্প পথে অতিরিক্ত দুই/তিন কি.মি পথ অতিক্রম করে ওই ইউনিয়নের নিউমার্কেট ও চৈতা বাজার হয়ে শিশুর হাট-বাজারে যাতায়াত করতে হয়।

ফলে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন ব্রিজটির পূর্ব পাড়ে থাকা কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাস্থ্য সেবা পেতে আসা রোগীরা। এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ ওই আয়রন ব্রিজ দিয়েই প্রতিদিন এসব অঞ্চলের বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বাজিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাজিতা সালেহিয়া দাখিল মাদ্রাসা, বাজিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীসহ মাধবখালী ইউনিয়নের বাজিতা প্রথম খণ্ড, বাজিতা দ্বিতীয় খণ্ড, বাজিতা তৃতীয় খণ্ড, বাাজিতা চতুর্থ খণ্ড ও লেবুবুনিয়া গ্রামের হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে আসছিল। কিন্তু জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ আয়রন ব্রিজের উপর দিয়ে যানবাহনসহ লোকজন চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় ওই সকল স্কুল-মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ এলাকার লোকজন চরম বিপাকে পড়েছেন।

সংশ্লিষ্ট মাধবখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. মনিরুল ইসলাম তালুকদার জানান, ব্রিজটি জনগুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় অতি শীঘ্রই পুনঃনির্মাণ করা প্রয়োজন।

মীর্জাগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী মো. সুলতান হোসেন জানান, ওই স্থানে একটি ঢালাই ব্রিজ নির্মাণের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আশা রাখি শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

ইত্তেফাক

Comments

comments