অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের খবর ভিত্তিহীন: শাকিব খান

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটছে- এমন গুজব গত কয়েকদিন ধরে মিডিয়ায় ভাসছে। শনিবার একটি অনলাইন গণমাধ্যমে এই গুজব নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়। বিষয়টি ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছেন শাকিব খান।

শনিবার সন্ধ্যায় যুগান্তরের সঙ্গে এক আলাপে তিনি বলেন, ‘আমি তো কাউকে কিছু বলিনি। কোনো অনলাইন পোর্টাল কিংবা কোনো প্রিন্ট মিডিয়া, টিভি মিডিয়া কারও সঙ্গে এ ব্যাপারে কোনো কথাই হয়নি। এসব কথা ভিত্তিহীন।’

শাকিব বলেন, ‘যদি এরকম কিছু ঘটে, তাহলে সেটা সবাই জানবে। এখানে লুকোচুরির কিছু নেই। যারা এসব ছড়াচ্ছেন তারা কখনোই ইন্ডাস্ট্রির ভালো চাননি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার সঙ্গে কথা না বলে আমার বরাত দিয়ে এসব যারা ছড়াচ্ছেন কিংবা যেসব অনলাইন আমার সঙ্গে কথা না বলেই আমার মন্তব্য দিয়ে খবর প্রকাশ করছেন তাদের বিরুদ্ধে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব। এজন্য আমি আমার আইনজীবীর সঙ্গে পরামর্শ করব।’

তবে কী আপনাদের বিচ্ছেদের বিষয়টি গুজব? এমন প্রশ্নের জবাবে শাকিব খান বলেন, ‘বিচ্ছেদ নিয়ে তো কারও সঙ্গেই কথা হয়নি। তাহলে সেটা গুজব কিংবা সত্যি এ প্রশ্ন আসবে কেন? যারা লিখেছেন তাদের সঙ্গে এটা নিয়ে কথাই হয়নি আমার। আর গুজবের বিষয়টি যারা বলছেন তারাই ভালো জানেন।’

এছাড়াও তিনি বিদেশে শুটিংয়ে থাকাকালীন তার বরাত দিয়ে যারা মিথ্যে খবর প্রকাশ করে তাদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে শাকিব খান যুগান্তরকে বলেন, ‘আমি যখন বিদেশে থাকি, তখন ঘনিষ্ঠ দুএক জন ছাড়া কারও সঙ্গেই আমার কথা হয় না। অথচ কিছু কিছু অনলাইন পোর্টাল বিদেশে আমার সঙ্গে কথা হয়েছে বলে আমার মন্তব্য তাদের মনগড়া ভাষায় লিখে দিচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যম কিংবা সাংবাদিকদের মানুষের বিবেক বলা হয়। কিন্তু তারা কীভাবে নিজের বিবেক বিসর্জন দিচ্ছে, এটা আমার বোধগম্য নয়। আমি এসব হলুদ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছি। আমার আইনজীবীর সঙ্গেও এ বিষয়ে কথা বলেছি।’

শাকিব বলেন, ‘আমি স্পষ্ট ভাষায় বলছি, যদি কখনও কিছু ঘটে তাহলে সেটা সবাই জানবেন। আমি নিজেই সবাইকে জানাব।’

যুগান্তর

 

Comments

comments