গুরুদাসপুরে ভুল চিকিৎসায় নববধূর মৃত্যুর অভিযোগ

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় ভুল চিকিৎসায় এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার রাতে উপজেলার নাজিরপুর এলাকায় আনোয়ার হোসেন ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ওই ঘটনায় মারা যাওয়া নববধূর নাম তানিয়া (২০)।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, নাজিরপুর বাবার বাড়িতে অবস্থানকালে পেটের যন্ত্রণায় গত মঙ্গলবার ওই ক্লিনিকে ভর্তি করা হয় তানিয়াকে। ক্লিনিকের ডাক্তার আমিনুল ইসলাম সোহেল তার শরীরে অস্ত্রোপচার করেন।

শুক্রবার রাতে যন্ত্রণায় কাতর হলে ডাক্তার আমিনুল ইসলাম সোহেলের ছোট ভাই ক্লিনিকের ডাক্তার পরিচয়দানকারী আমিরুল ইসলাম সাগরের দেওয়া ব্যবস্থা পত্র অনুযায়ী ১০০ টাকায় একটি ইঞ্জেকশান আনিয়ে তা ওই রোগীকে পুশ করেন। এর কিছুক্ষণ পড়ে নববধূ তানিয়ার মৃত্যু হয়।

জানা যায়, এঘটনার পর ওই ভুয়া ডাক্তার গা ঢাকা দিয়েছেন। পরে ঘটনাটি ধামাচাপা দিয়ে রাতভর চলে দেন দরবার। এক সময় দেগলাখ টাকায় রফা হলেও পুলিশ এসে বাধা দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে নাটোর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে নাটোর মর্গে পাঠিয়েছে। তবে এব্যাপারে নিহতের পরিবার বা অন্য কেউ থানায় কোন অভিযোগ করেননি।

Comments

comments