কালীগঞ্জে পুলিশি হয়রানীর প্রতিবাদে গ্রামবাসীর ঝাঁটা মিছিল, ধাওয়া খেয়ে পালিয়েছে এসআই

ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশি হয়রানীর প্রতিবাদে এবার ঝাঁটা মিছিল করেছে গ্রামবাসী। বুধবার রাত ৯ টার দিকে পৌরসভাধীন কাশিপুর গ্রামের শতাধিক নারী-পুরুষ কালীগঞ্জ-কোটচাঁদপুর সড়ক ঝাঁটা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে। কাশীপুর গ্রামের শুকুর আলীর স্ত্রী চালিতা বেগম, সাইদুল ইসলাম স্ত্রী শিউলি বেগম, মিন্টু মিয়ার স্ত্রী চেয়ারী খাতুনসহ একাধিক ব্যক্তি জানায়, পুলিশ প্রায়ই তাদের গ্রামে সাদা পোশাকে এসে যার তার বাড়িতে বিনা অনুমতিতে প্রবেশ করে এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। তারা জানায়, কালীগঞ্জ থানার এসআই কওসার আলম এবং একজন কনেস্টবল বুধবার রাতে সাদা পোশাকে এসে তাদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করে। বুধবার রাত ৯ টার দিকে কাশিপুর গ্রামের শুকুর আলীর বাড়িতে প্রবেশ করে। এ সময় গৃহবধূ চালিতা বেগম তার বাড়িতে আসার কারন জানতে চাইলে ওই দারোগা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

এসময় প্রতিবেশি শতাধিক নারী-পুরুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে দারোগা কওসার আলমকেক ধাওয়া করে। এ সময় দারোগা মটর সাইকেলের হেড লাইট বন্ধ করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে কোটচাঁদপুরের দিকে চলে যান। এরপর গ্রামের অসংখ্য নারী-পুরুষ কালীগঞ্জ-কোটচাঁদপুর সড়কে এসে ঝাঁটা মিছিল করে। সে সময় তারা পুলিশের অত্যাচার নির্যাতন বন্ধ কর, করতে হবে বলে স্লোগান দেয়। পরে খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানার এসআই নিরব হোসেন ঘটনাস্থলে যেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার এসআই কওসার আলম বলেন, আমি সেখানে ওয়ারেন্ট ভুক্ত এক আসামি ধরতে গিয়েছিলান। কেউ তাকে ধাওয়া দিয়েছে এমন ঘটনা সে অস্বীকার করেন। কালীগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান খান জানান, এসআই কওসার সেখানে আসামি ধরতে গিয়েছিল। আর রাতেই আমি সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম তবে এ ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়নি।

Comments

comments