রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বেগম খালেদা জিয়া

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সোমবার (৩০ অক্টোবর) বেলা সোয়া একটায় তিনি রোহিঙ্গাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেন। রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা দিতে সকাল ১১ টা ২০ মিনিটে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে কক্সবাজার সার্কিট হাউজ থেকে বের হন তিনি।

কক্সবাজার শহর থেকে মেরিন ড্রাইভ হয়ে তিনি উখিয়াতে যান। এসময় পথের নানা স্থানে নেতাকর্মীরা তাকে স্বাগত জানান। খালেদা জিয়ার আগমন উপলক্ষে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছবিসহ ব্যানার টাঙিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয় তাকে। খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খানসহ সিনিয়র নেতারা উপস্থিত রয়েছেন।

এদিকে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খালেদা জিয়ার ত্রাণ বিতরণের আগে সোমবার সকালে সেখানে অবস্থানরত সেনাবাহিনীর কাছে ৪৫ ট্রাক ত্রাণ হস্তান্তর করেছেন বিএনপির ত্রাণ কমিটির আহ্বায়ক ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। সেসময় তিনি বলেন, ‘আমরা রোহিঙ্গাদের জন্য চাল, শিশু খাদ্য ও গর্ভবতী মায়ের খাদ্যসহ বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী হস্তান্তর করেছি।’

জানা গেছে, খালেদা জিয়া ময়নার গোনা, হাকিমপাড়া ও বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে ত্রাণ দিয়ে বালুখালি পানবাজারে স্থাপিত ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন (ড্যাব) এর মেডিকেল ক্যাম্পে ৫ হাজার রোহিঙ্গা শিশু ও প্রসূতি মায়ের জন্য চিকিৎসা সামগ্রী চিকিৎসকদের কাছে হস্তান্তর করবেন।

এর আগে শনিবার সকালে রাজধানী থেকে রওনা দিয়ে ওইদিন সন্ধ্যার পর চট্টগ্রাম পৌঁছান খালেদা জিয়া। পথে ফেনী ও চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে তাঁর গাড়িবহরে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে সাংবাদিকসহ বেশ কিছু মানুষ আহত হয়। হামলায় বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। চট্টগ্রামে রাত্রিযাপন শেষে গতকাল রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা হন বিএনপি চেয়ারপারসন। পৌঁছান রাত ৮টার দিকে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ শেষে ৩১ অক্টোবর ঢাকায় ফেরার কথা বিএনপি চেয়ারপারসনের।

Comments

comments