ব্যবহারকারীদের কথোপকথন শোনা হয় না: ফেসবুক

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের খ্যাতি যেমন রয়েছে, ব্যবহারকারীদের অভিযোগও কিন্তু কম নয়। বেশ কিছু ব্যবহারকারী অভিযোগ করেছেন, তাঁদের পর্দায় এমন কিছু বিজ্ঞাপন দেখা গেছে, যেগুলো তাঁদের ব্যক্তিগত কথোপকথনের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। যদিও তাঁরা সে বিষয়ে অনলাইনে খোঁজ করেননি বা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্টও করেননি।

স্মার্টফোন বা যন্ত্রের মাইক্রোফোন ব্যবহার করে একজন ব্যবহারকারীর কথোপকথন শুনে সে অনুযায়ী ওই ব্যবহারকারীর নিউজ ফিডে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফেসবুকের বিজ্ঞাপন বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট রব গোল্ডম্যান। প্রযুক্তিবিষয়ক পডকাস্ট ‘রিপ্লাই অল’-এর উপস্থাপক পিজে ভটের এক টুইটে উত্তর দেওয়ার সময় রব গোল্ডম্যান অভিযোগটি অস্বীকার করেন।

আশ্চর্যজনকভাবে অনেক ব্যবহারকারী সাম্প্রতিক সময়ে তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের কথোপকথন সম্পর্কিত বিজ্ঞাপন দেখতে পান এবং সে বিষয়ে অভিযোগ করেন। মূলত এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য পিজে ভট এক টুইটে রবকে প্রশ্ন করেন। প্রতি উত্তরে গোল্ডম্যান লেখেন, ‘আমি ফেসবুকের বিজ্ঞাপন পরিচালনা করি। আমরা এমনটা করিনি এবং কখনোই বিজ্ঞাপনের জন্য আপনাদের মাইক্রোফোন ব্যবহার করিনি।’ আরেকজন টুইটার ব্যবহারকারী ইনস্টাগ্রাম সম্পর্কে একই প্রশ্ন করলে গোল্ডম্যান একই উত্তর দেন।

পিজে ভট তাঁর টুইটে অসংখ্য প্রতি উত্তর পেয়েছেন। যেখানে তাঁর একজন সহকর্মী লিখেছেন, তিনি একটি বিজ্ঞাপন দেখতে পান। যেখানে লেখা ছিল, তাহলে আপনি প্রশ্নটি করেই ফেললেন! তিনি বিজ্ঞাপনটি ঠিক তাঁর প্রিয়জনকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার পরপরই দেখতে পান। যদিও তিনি এ বিষয়ে কাউকে কিছু বলেননি। অন্যদিকে একজন কফিশপ কর্মীর হাত পুড়ে যায় এবং তিনি তাঁর বন্ধুকে সে বিষয়ে বলে বার্ন ক্রিম কিনতে যান। পরে তিনি ফেসবুকে একই ক্রিমের বিজ্ঞাপন দেখতে পান।

ফেসবুক এ ধরনের চর্চা সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি এ বিষয়ে জানিয়েছে, ‘আমরা মানুষের পছন্দ এবং তাঁদের প্রোফাইলের তথ্যের ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে থাকি। আপনারা কী কথা বলছেন, তার ভিত্তিতে নয়।’

বিবিসি

Comments

comments