ফরিদপুরে হামলায় বিএনপি নেতা নিহত

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা বিএনপির সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. শামসুল আলমকে (৪০) কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। আজ বুধবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় আহত হয় কমপক্ষে পাঁচজন। তাদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, উপজেলার গুনবহা ইউনিয়নের গুড়দিয়া গ্রামে বিএনপি নেতা শামসুল আলমের সঙ্গে জমিসংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ইলিয়াস মোল্লার বিরোধ চলছিল। বুধবার সকালে শামসুল আলম জমিতে ধান কাটতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাতে বাধা দেয়। এ সময় শামসুল আলম ও তাঁর সহযোগীদের ওপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় তারা। হামলাকারীরা ছয়জনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। আহতদের মধ্যে পাঁচজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকি একজনকে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বেলা ১টার দিকে ফরিদপুর মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শামসুল হক মোল্লা।

আহত ব্যক্তিরা হলেন টিটু (৩৫), হেমায়েত (২৯), ইলিয়াস (৩৫), শাহাজাহান (৪২) ও ওমর আলী (২০)।

ওসি মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক স্বপন কুমার জানান, শামসুল আলমের পেটের ডান পাশ গুরুতর জখম ছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সূত্র: এনটিভি অনলাইন

Comments

comments